সিক্রেটস অব জায়োনিজম pdf download

 



সিক্রেটস অব জায়োনিজম

হেনরি ফোর্ড


হেনরি ফোর্ড, নামটা কি পরিচিত মনে হয়? আমেরিকা সেই যে বিখ্যাত ফোর্ড গাড়ি, তার প্রতিষ্ঠাতা এই হেনরি ফোর্ড ভদ্রলোক ৷ ব্যবসা পরিচালনা করতে যেয়ে আবিষ্কার করেন, চারিদিকে যে ইহুদিদের (জায়োনিষ্ট) জাল ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে! 


অন্যান্য আর সবার মতো তিনি চুপচাপ বসে দেখবার পাত্র ছিলেন না ৷ কিছু একটা করবার তাড়না তাকে পেয়ে বসে ৷ ১৯২০ সালের সময় শুরু করেন নিজের জনপ্রিয় পত্রিকা, 'দ্য ডিয়ারবর্ন ইনডিপেনডেন্ট' ৷ নিজের পত্রিকায় শুরু করলেন কলাম লিখন ৷ নিজের দেখা ও অভিজ্ঞতার আলোকে লিখে ফেলেন সুদীর্ঘ ৯১ পর্বের তুমুল সাড়াজাগানো কলাম ৷ যার ফলারলস্বরূপ আমেরিকান ইহুদি ও ইহুদি রাষ্ট্র হিসেবে দাবি করা ইসরাইলের মুখোশ উন্মোচন হয়ে পরে ৷ বিপুল জনপ্রিয়তা, তথ্যবহুল কলামের সুবাদে অল্প সময়ের মাঝেই প্রস্তুত হয়ে পরে 'The International Jew' নামের ৪ খন্ডের বই ৷ এইযে এত প্রভাব-প্রতিপত্তির ইহুদি, যাদের নিয়ে এই লেখা, তারা কি আর চুপ করে বসে থাকবে ? অবশ্যই না! তারই ফলাফলস্বরূপ সপ্তাহের ভেতর সব বই লাপাত্তা হয়ে যায় ! ফোর্ডের পত্রিকার বিরুদ্ধে উঠে সম্প্রিতি ভঙ্গের অভিযোগ ৷ যার সর্বশেষ ফলাফল ১৯২৭ সালে নিষিদ্ধ হয় ফোর্ডের পত্রিকা ও এ বই ৷ 


যত চেষ্টাই করা হোক, জনপ্রিয় হয়ে যাওয়া কোন বইকে আজ পর্যন্ত একবারে মুছে দেওয়া যায়নি ৷ তেমনি সময়ের পরিক্রমায় ফিরে আসে হেনরি ফোর্ডের বইটিও ৷ ১৯৮০ সালে পর পর পুনরায় প্রকাশিত হয় ৷ অনূদিত হয় পৃথিবীর ২৩ টি ভাষায় ৷ যার বাংলা অনুবাদ এখন আপনাদের সামনে ৷ 'সিক্রেটস অব জায়োনিজম' নামে ৷ 


নিঃসন্দেহ এ বইটি ইহুদিদের জন্য বিশাল এক আঘাত ৷ তাদের চক্রান্তের নীল নকলা যে প্রকাশ হয়ে পরেছে ৷ মনে রাখতে হবে, সত্য যতই তিক্ত হোক না কেন,এটাই একমাত্র ওষুধ,যা পুরো মানবজাতিকে অশুভ শয়তানের বিরুদ্ধে এক করতে পারে । ইতিহাস বলে, ইহুদিরা সবচেয়ে বেশি ভয় পায় সত্যকে। তাদের ক্ষমতার ভিত্তি কেবল মিথ্যা ও ধোঁকাবাজি ।


গুরুত্বপূর্ণ এ বইয়ের অনুবাদ, অনুবাদক খুবই সুচারু ও সুন্দরভাবে সম্পাদন করেছেন ৷ সাবলীল গতিতে এগিয়ে যাওয়া বইটি পড়তে বেগ পেতে হবেনা মোটেও ৷


প্রতি অধ্যায়েই রয়েছে একের পর এক চমক ৷ রুদ্ধশ্বাসে পাঠক অবাক হয়ে অনুভব করবেন ইহুদিদের কর্মতৎপরতা, সুচারু পরিকল্পনা, কাজ সম্পাদনে শেষ অবধি লেগে থাকার প্রশংসনীয় চারিত্রিক বৈশিষ্টের ৷ তেমনি খুজে পাবেন নিজেদের হাতে মুঠোয় সব করায়ত্ত করতে কি নৃশংস খেলায় মেতে উঠেছে তারা ৷


অসংখ্য রেফারেন্স, তথ্য বিশ্লেষণে ভরপুর বইটি অনুসন্ধানী পাঠকের মনের তৃষ্ণা মেটানোর পাশাপাশি পৃথিবীর এক নতুন চিত্র সামনে তুলে ধরবে ৷ চিন্তাশীল, ধার্মিক বা নাস্তিক সকলের জন্যই অবশ্য পাঠ্য ৷ 


লেখা বেশি দীর্ঘ না করে বলবো, বইটি একবার হলেও পড়ে দেখুন ৷ জীবনের অনেক কিছুই এখনো যে অজানা ! যার কিছুটা স্বাদ পেয়ে যাবেন এই বইটিতে । আমার মত যারা ইহুদি জাতির সম্পর্কে কম জানেন, তারা এই বইয়ের প্রতি পৃষ্ঠা পড়ে পড়ে চমকে উঠবেন ! সারাবিশ্বে ইহুদিরা কিভাবে সব কিছু তাদের করতলে এনে রেখছে তার একটা বিশ্লেষণধর্মী লেখনী চোখ খুলে দেবে আপনার । 

দুনিয়ার অনেক আগের ইতিহাস থেকে তাদের অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে । কেনই বা তারা আজীবন যাযাবর জাতি হয়ে আছে । দুনিয়ার বড় বড় ঘটনায় তাদের প্রভাব, ব্যাংক সৃষ্টিতে তাদের প্রভাব, বলশেভিক আন্দোলনে তাদের ষড়যন্ত্র, খাদ্যে ভেজাল মিশ্রিত করার সংস্কৃতি, আন্তর্জাতিক মিডিয়া কুক্ষিগত করা, নিউইয়র্কে নতুন জেরুজালেম তৈরি এসব কিছু এই বইতে চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হয়েছে । এবং সবচেয়ে বড় বিষয় তাদের ইসরাইল রাস্ট্র সৃষ্টির নীলনকশা সম্পর্কে বলা হয়েছে । ফুয়াদ আল আজাদ ভাই উনি এই বইয়ের ভাষান্তর করেছেন খুবই সুনিপুণ ভাবে, সেই কারনেই বইটা পড়তে এক মুহূর্ত বিরক্তি লাগবে না । অনুবাদক পাঠকের বোঝার সুবিধার্থে নতুন কিছু তথ্য ও যোগ করেছেন । এক কথায় বইটি তাদের অবশ্যই পড়া উচিত যাদের conspiracy theory এর উপর ঝোঁক আছে । তেমনি মুসলিম হিসেবে নিজেকে ইহুদি চক্রান্ত থেকে হেফাজত করতেও বইটি পড়া প্রয়োজন ৷ 


সিক্রেটস অব জায়োনিজম pdf

এখানে ক্লিক করুন ]

Post a Comment

0 Comments