মাহিন মাহমুদ এর বই pdf download |


 

ঔপন্যাসিক এবং গল্পকার মাহিন মাহমুদ বর্তমান সময়ের জনপ্রিয়, পাঠকনন্দিত নাম। বাংলার গ্রামীণ পরিবেশের রং, রূপ এবং সৌন্দর্য গায়ে মেখে তার বড় হয়ে ওঠা। লেখাপড়ার হাতেখড়ি গ্রামের স্কুলে। পরবর্তীতে বাবার ব্যবসার সুবাদে শহরে আসা হয় এবং এখানেই থিতু হন। লেখাপড়া শুরু হয় মাদরাসায়। 

ব্যাক্তি মাহিন মাহমুদ ভালোবাসেন স্বপ্ন দেখতে। স্বপ্ন দেখেন সুন্দর একটি দেশের। যে দেশের মানুষগুলোর চিন্তা-ভাবনা হবে প্রকৃতির মতোই মনোরম,সুন্দর এবং মায়াময়। কিন্তু, সমাজের চিত্র এর সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। এই চিত্র তাকে ব্যথিত করে। ব্যাকুল করে হৃদয়। তবুও তার স্বপ্ন; এই সমাজ একদিন বদলাবেই। 

দিন বদলের স্বপ্ন নিয়েই তিনি কলম চালিয়ে যাচ্ছেন নিয়মিত। ইতিমধ্যেই পাঠকসমাজের কাছে সে বার্তা তিনি পৌঁছাতেও পেরেছেন। ‘আঁধার মানবী’, ‘শেষ চিঠি’, ‘একটি লাল নোটবুক’, ‘পুণ্যময়ী’, ‘প্রাসাদপুত্র’ ‘প্রাসাদপুত্র-২-এর মতো ছয়-ছয়টি সুখপাঠ্য উপন্যাস ছাড়াও লিখেছেন আত্মপরিচর্যামূলক গল্পগ্রন্থ-‘কাল থেকে ভালো হয়ে যাব’। বইগুলোর অবস্থান এখন পাঠকপ্রিয়তার সর্বোচ্চ শিখরে। 

লেখনীর মাধ্যমে তিনি পেরেছেন সমাজের বাস্তব চিত্র অত্যন্ত সফলতার সাথে সকলের সামনে তুলে ধরতে। ফেসবুক আর ইউটিউবে আকৃষ্ট যুবসমাজকে তিনি পেরেছেন বইপাঠের প্রতি উৎসাহিত করতে। দ্বীনের প্রসার এবং সুন্দর, সুশোভিত সমাজ বিনির্মাণে তার এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকুক। 


আঁধার মানবী pdf


জামিলের সঙ্গে জেরিনের পরিচয়ের শুরুটা ইউনিভার্সিটিতে। উচ্ছের মতো তেতো প্রারম্ভটাই একসময় হয়ে ওঠে সুমিষ্ট। এরপরই বাঁক নেয় জেরিনের জীবন। সময়ের পথ হেঁটে আঁধার ডিঙিয়ে জেরিন বেরিয়ে আসে আলোর পৃথিবীতে। কেমন সেই আলোর পৃথিবী? কেমন ছিলো অন্ধকার গলি থেকে বেরিয়ে আলোর মহাসড়কে আসা জেরিনের গল্প। সেই উপাখ্যানই মাহিন মাহমুদের উপন্যাস "আঁধার মানবী"! বইটির পিডিএফ লিংক এখানে


শেষ চিঠি pdf


পরিবারের পছন্দক্রমেই বিয়ে আহসান ও নওশিনের মধ্যে। বিয়ের পরেও পশ্চিমা সংস্কৃতির মেনে চলা নওশিন আহসান কে মেনে নিতে পারছিল না। বারবার তার মনে পড়তে থাকে ভালোবাসার মানুষটির কথা। একসময় ভালোবাসার মানুষটির হাতেই কিডন্যাপ হয় নওশিন। কিন্তু কিডন্যাপ অবস্থা থেকে অনেক কষ্টে মুক্তি পাওয়ার পর স্বামী আহসানের সাথে লজ্জা ও অনুশোচনায় সামনা-সামনি কথা বলতে পারে না। ফলে সে তার মনের সমস্ত কথা একটি চিঠির মাধ্যমে লিখে আহসানকে জানায়।

কি লেখা ছিল সেই চিঠিতে?

অসহায় সায়মারই বা কী হয় শেষে?

আহসান ও নওশিনের ভাগ্যেই বা কি ঘটে শেষ পর্যন্ত?

এমন কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে হলে পড়তে হবে “শেষ চিঠি” উপন্যাসটি। বইটির পিডিএফ লিংক এখানে


পুণ্যময়ী pdf


হিদায়াতের পথ পেয়ে পুণ্যময়ী জারা এরপর বসে থাকে না। তাঁর ভাবনায় ব্যতিক্রম কিছু। সে চায়, সমাজের সবশ্রেণির মেয়েদের কাছেই দ্বীনের দাওয়াত পৌঁছুক। এক্ষেত্রে জারার প্রথম লক্ষ—অভিনেত্রী কাবেরি। ব্যস্ত এবং দেশজুড়ে জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর সঙ্গে কথা বলা কি এতই সহজ? 

জারার সামনে একটাই সুযোগ। টেলিভিশনে অভিনেত্রীর একটা লাইভ অনুষ্ঠান। লাইভ অনুষ্ঠানটির পর পুলিশের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয় জারা। সে নাকি জঙ্গি। পুলিশ তাঁকে খুঁজতে থাকে।

কী ঘটে এরপর? জানতে হলে পড়ুন বইটি। বইটির পিডিএফ লিংক এখানে

কাল থেকে ভালো হয়ে যাবো pdf


আজ নয় কাল। এখন নয় একটু পর। এই একটি ভাবনাই আমাকে ‘পরপারের পাথেয় সংগ্রহ প্রতিযোগিতা’ থেকে পিছিয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।এই ভাবনার জনক আর কেউ না; অভিশপ্ত শয়তান। সে সারাক্ষণই আমাদের পেছনে লেগে আছে। ভালো হতে চাইলেই বাধা দেবে। পাশে বসে কানের কাছে ফিঁসফিঁস করে অনুরোধ করতে থাকবে—’স্যার, এত তাড়াতাড়ি ভালো হয়ে যাবেন? লাইফটা তাহলে ইনজয় করবে কে? 

শয়তানের এরূপ কু-মন্ত্রণা থেকে বাঁচতে, সময়ের কাজ সময়ে করতে, সফলতার পথে এগিয়ে যেতে বইটি পড়ুন। বইটির পিডিএফ লিংক এখানে
 

Post a Comment

0 Comments